" " " "

হজকারীর ভুলত্রুটি: সাধারণ ভুলত্রুটি এড়ানোর উপায়

হজ একটি পবিত্র এবং গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত যা মুসলিম উম্মাহর জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি ইসলামের পঞ্চম স্তম্ভ এবং প্রতিটি সক্ষম মুসলমানের জীবনে অন্তত একবার পালন করা ফরজ। হজের সময় কিছু ভুলত্রুটি (ভুল) হওয়ার সম্ভাবনা থাকে যা হজের মান কমাতে পারে। তাই হজকারীদের জন্য সঠিক নিয়মকানুন জানা এবং সঠিকভাবে পালন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই নিবন্ধে আমরা হজকারীর ভুলত্রুটি নিয়ে আলোচনা করবো এবং কীভাবে সেগুলি এড়ানো যায় তা জানার চেষ্টা করবো।

তাওয়াফের সাধারণ ভুলত্রুটি

তাওয়াফ হল হজের একটি মূল অংশ যেখানে হাজিরা কাবা শরীফকে সাতবার প্রদক্ষিণ করেন। এই সময় কিছু সাধারণ ভুল হতে পারে যা হজের মান কমিয়ে দিতে পারে। তাওয়াফের সময় সঠিক নিয়ত না করা একটি বড় ভুল। নিয়ত বা উদ্দেশ্য সঠিকভাবে না জানলে তাওয়াফ শুদ্ধ হয় না। তাওয়াফ শুরু করার নির্দিষ্ট পয়েন্টও অনেকেই ঠিকমতো বুঝতে পারেন না। কাবার হজরে আসওয়াদের ঠিক বিপরীত দিক থেকে তাওয়াফ শুরু করতে হয়, যা অনেকে মিস করেন।

তাওয়াফের সময় দ্রুত চলাফেরা করাও একটি বড় ভুল। তাওয়াফ ধীরে ধীরে এবং শান্তভাবে করতে হয়, যেন কোনো বিশৃঙ্খলা না ঘটে। তাওয়াফের সময় সঠিক পোশাক পরিধান করাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পুরুষদের ইজতিবা (এক কাঁধ খোলা) করে তাওয়াফ করতে হয়, যা অনেকেই ভুলে যান বা জানেন না। মহিলাদের জন্য পূর্ণ পোশাক পরিধান করতে হয়, যা অনেক সময় সঠিকভাবে পরিধান করা হয় না।

তাওয়াফের সময় দোয়া ও যিকর করার নিয়মও অনেকে জানেন না। তাওয়াফের প্রতিটি চক্করের জন্য নির্দিষ্ট দোয়া আছে যা জানা উচিত এবং সঠিকভাবে পাঠ করা উচিত। এছাড়া, তাওয়াফের সময় কাবার খুব কাছে যাওয়ার চেষ্টা করা এবং অন্যদের অসুবিধা সৃষ্টি করাও একটি বড় ভুল।

সাঈ এর ত্রুটি

 

হজকারীর ভুলত্রুটি

সাঈ হলো সাফা এবং মারওয়া পাহাড়ের মধ্যে সাতবার চলাফেরা করা। এটি হজের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ এবং এখানে অনেকেই কিছু ভুল করে থাকেন। সাঈ শুরু এবং শেষ করার পয়েন্ট নিয়ে অনেকের মধ্যে ভুল ধারণা রয়েছে। সাঈ সঠিকভাবে সম্পন্ন করার জন্য সাফা থেকে মারওয়া পর্যন্ত চলাফেরা করতে হয়, যা অনেকে ভুল করেন এবং মারওয়া থেকে শুরু করেন।

সাঈ চলাকালে ভুল দোয়া পাঠ করা এবং সম্পূর্ণ সময় দ্রুত চলাফেরা করাও বড় ভুল। সাঈ করার সময় ধীরে ধীরে এবং সঠিক নিয়ম মেনে চলাফেরা করতে হয়। বিশেষত সাঈ এর নির্দিষ্ট অংশে দৌড়ানো নিয়ম, যা অনেকেই মানেন না। পুরুষদের জন্য সবুজ চিহ্নের মাঝখানে দৌড়ানো বাধ্যতামূলক, যা অনেকেই জানেন না বা মানেন না।

সাঈ এর সময় ইজতিবা (এক কাঁধ খোলা) করে চলাফেরা করাও একটি ভুল। এটি শুধুমাত্র তাওয়াফের সময় করতে হয়। এছাড়া, সাঈ এর প্রতিটি চক্করের জন্য আলাদা দোয়া নির্ধারণ করাও একটি বড় ভুল।

আরাফাতে দাঁড়ানোর ভুল

আরাফাতের দিন হজের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে বিবেচিত হয়। এ দিনটি ছাড়া হজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়। কিন্তু আরাফাতে অনেক হাজি সাধারণ কিছু ভুল করে থাকেন যা তাদের হজের মান কমিয়ে দেয়। একটি বড় ভুল হলো আরাফাতের সীমানার মধ্যে উপস্থিত না থাকা। আরাফাতের সীমানার বাইরে থাকলে হজ শুদ্ধ হয় না। হাজিদের জন্য আরাফাতের নির্দিষ্ট সীমানার মধ্যে উপস্থিত থাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আরেকটি সাধারণ ভুল হলো আরাফাতের সময় পর্যাপ্ত দোয়া এবং ইবাদাত না করা। অনেক হাজি আরাফাতে দাঁড়িয়ে পর্যাপ্ত সময় দোয়া এবং ইবাদাত করেন না, যা হজের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আরাফাতে অবস্থানের সময় আল্লাহর কাছে প্রার্থনা এবং মাগফিরাত চাওয়া উচিত।

আরাফাতের সময় অনেক হাজি সময়ের আগে সেখান থেকে চলে যান। এটি একটি বড় ভুল কারণ আরাফাতের সময় শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে থাকা উচিত। আরাফাতের দিন সূর্যাস্ত পর্যন্ত সেখানে থাকা ফরজ।

মুযদালিফায় ভুল

মুযদালিফায় হাজিরা আরাফাত থেকে এসে রাতে অবস্থান করেন এবং ফজরের নামাজ আদায় করেন। এই সময় কিছু সাধারণ ভুল হয় যা এড়ানো জরুরি। একটি সাধারণ ভুল হলো সঠিক সংখ্যক পাথর সংগ্রহ না করা। হাজিদের জন্য জুমার দিনে মিনা যাওয়ার জন্য ৭০ টি পাথর সংগ্রহ করা জরুরি।

ফজরের নামাজ আদায় না করাও একটি বড় ভুল। মুযদালিফায় ফজরের নামাজ আদায় করা বাধ্যতামূলক। অনেক হাজি এই নামাজ বাদ দিয়ে থাকেন, যা হজের শুদ্ধতা কমিয়ে দেয়।

মুযদালিফা থেকে সূর্যোদয়ের আগে চলে যাওয়া আরেকটি সাধারণ ভুল। হাজিদের জন্য সূর্যোদয়ের পরে মুযদালিফা থেকে মিনা যাওয়া ফরজ। সূর্যোদয়ের আগে চলে যাওয়া বিধি বহির্ভূত।

মিনায় ভুল

মিনায় হাজিরা শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করেন এবং কোরবানি দেন। এখানে কিছু সাধারণ ভুল হয় যা এড়ানো উচিত। পাথর নিক্ষেপের সময় ভুল করা একটি বড় সমস্যা। অনেক হাজি শয়তানের প্রতীকী স্তম্ভের কাছে না গিয়ে দূর থেকে পাথর নিক্ষেপ করেন, যা সঠিক নয়।

মিনায় পর্যাপ্ত সময় না থাকা এবং সঠিক ধারাবাহিকতা না মানা আরেকটি বড় ভুল। মিনায় হাজিরা তিন দিন অবস্থান করেন এবং প্রতিদিন পাথর নিক্ষেপ করেন। এই সময় সঠিক নিয়ম মেনে চলা জরুরি।

বিদায়ী তাওয়াফের ভুল

মক্কা ত্যাগ করার আগে বিদায়ী তাওয়াফ না করা একটি বড় ভুল। এটি ফরজ এবং এটি ছাড়া মক্কা ত্যাগ করা উচিত নয়। অনেকেই মনে করেন এটি এড়িয়ে যাওয়া যায়, যা ভুল ধারণা। দ্রুত বিদায়ী তাওয়াফ করা আরেকটি সাধারণ ভুল। তাওয়াফ ধীরে ধীরে এবং শান্তভাবে করা উচিত।

সাধারণ ভুল

সাধারণ ভুল

হজের সময় কিছু সাধারণ হজকারীর ভুলত্রুটি হয় যা হজের মান কমিয়ে দেয়। এ ধরনের ভুলগুলো সাধারণত হজের সঠিক পদ্ধতি না জানার কারণে ঘটে। হজ পালনের আগে সঠিক নিয়মকানুন শিখে নেয়া এবং প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অনেক হাজি সাংস্কৃতিক প্রথা অনুসরণ করেন যা ইসলামের বিধি-বিধান অনুসারে নয়। ইসলামের সুন্নাহ এবং কুরআনের নির্দেশনা অনুসরণ করাই সবচেয়ে জরুরি।

একটি সাধারণ ভুল হলো ইবাদাত এবং দোয়ার সময় সঠিক নিয়ম না মানা। অনেক হাজি দোয়া করার সময় সঠিক নিয়ম মেনে চলেন না এবং তাদের দোয়া শুদ্ধ হয় না। ইবাদাতের সময় খেয়াল রাখতে হবে যেন কোনো বিধি-বিধান লঙ্ঘন না হয়।

আরেকটি বড় ভুল হলো হজের সময় অতিরিক্ত সরঞ্জাম এবং ব্যক্তিগত সামগ্রী বহন করা। হজের সময় কম এবং প্রয়োজনীয় সামগ্রী বহন করা উচিত যাতে ইবাদাতের সময় কোনো অসুবিধা না হয়।

সাধারণ প্রশ্নাবলী (FAQs)

১. তাওয়াফের সময় কী কী সাধারণ ভুল হয়?

তাওয়াফের সময় সাধারণ ভুল হলো সঠিক নিয়ত না করা, দ্রুত চলাফেরা করা, সঠিক পোশাক না পরিধান করা এবং দোয়া ও যিকর সঠিকভাবে না করা।

২. সাঈ করার সময় কী কী ভুলত্রুটি হয়?

সাঈ করার সময় সাধারণ ভুল হলো সঠিক পয়েন্ট থেকে শুরু এবং শেষ না করা, পুরো সময় দ্রুত চলা, এবং সঠিক নিয়মে দোয়া না করা।

৩. মুযদালিফায় কোন কোন ভুল করা হয়?

মুযদালিফায় সাধারণ ভুল হলো সঠিক সংখ্যক পাথর সংগ্রহ না করা, ফজরের নামাজ বাদ দেয়া এবং সূর্যোদয়ের আগে মুযদালিফা ছেড়ে যাওয়া।

৪. আরাফাতে দাঁড়ানোর সময় কোন কোন ভুল করা হয়?

আরাফাতে দাঁড়ানোর সময় সাধারণ ভুল হলো আরাফাতের সীমানার মধ্যে উপস্থিত না থাকা, পর্যাপ্ত দোয়া এবং ইবাদাত না করা, এবং সময়ের আগে আরাফাত ছেড়ে যাওয়া।

৫. বিদায়ী তাওয়াফ করার সময় কী কী ভুল হয়?

বিদায়ী তাওয়াফের সময় সাধারণ ভুল হলো তাওয়াফ না করা, দ্রুত তাওয়াফ করা, এবং সঠিক নিয়মে দোয়া না করা।

সমাপ্তি

হজ পালনের সময় সঠিক নিয়মকানুন জানা এবং সঠিকভাবে পালন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। হজের সময় সাধারণ হজকারীর ভুলত্রুটি এড়ানোর জন্য সঠিক জ্ঞান এবং প্রস্তুতি প্রয়োজন। হজ পালনকারীরা হজের প্রতিটি ধাপে সঠিক নিয়ম মেনে চলা উচিত এবং ইসলামিক বিধি-বিধান অনুসরণ করা উচিত। আল্লাহ আমাদের সকলকে সঠিকভাবে হজ পালনের তাওফিক দিন এবং আমাদের ভুলত্রুটি ক্ষমা করুন।

এই নিবন্ধে হজের সাধারণ ভুলত্রুটি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে এবং সেগুলি কীভাবে এড়ানো যায় তা ব্যাখ্যা করা হয়েছে। হজ পালনের সময় সঠিক নিয়মকানুন জানার গুরুত্ব এবং সেগুলি মেনে চলার প্রয়োজনীয়তা এখানে উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করি এই নিবন্ধটি হজ পালনের সময় আপনাকে সহায়ক হবে।

ভালো লাগতে পারে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button