জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে কি করবেন?

আপনার কি জিপি সিমের ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেছেন ? এই কারণে আপনি জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে কি করবেন সেটা জানতে চাইছেন ? তাহলে আজকের এই পোস্ট পড়লে আপনি জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে করণীয় সহ জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড গুলো জানতে পারবেন।

বাংলাদেশের অবস্থিত সিম কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় হচ্ছে গ্রামীণফোন যাকে সংক্ষেপে বলা হয় জিপি। তবে এই জিপি সিমের একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এখান থেকে রিচার্জ করা টাকা গুলো ট্রান্সফার করা যায়।

অর্থাৎ আপনি জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। অনেক সময় দেখা যায় আমার মোবাইলে ভুল করে অনেক বেশি টাকা রিচার্জ করে ফেলি তখন সেটা চাইলে আমরা অন্যান্য জিপি সিমে জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড এর মাধ্যমে পাঠিয়ে দিতে পারব।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে কী করব?

যখন আপনি জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাইবেন তখন সেখানে একটি পিন নাম্বার প্রয়োজন পড়বে। এই পিন নাম্বারটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি ভুলে গেলে আপনি ওই সিম থেকে আর ট্রান্সফার করতে পারবেন না।

তবে অনেক সময় দেখা যায় আমরা পিন সেট করার পর অনেকদিন ব্যালেন্স ট্রান্সফার না করার কারণে এটি বিভিন্ন কারণে ভুলে যাই। কিন্তু চিন্তা করার কারণ নেই কারণ আপনি আমার এই পোস্ট পড়ে খুব সহজেই আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন টি ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন।

ধাপ ০১: আপনি জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড ডায়াল করার মাধ্যমে এই পিন ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন না। তো এর জন্য আপনাকে প্লে স্টোরে যেতে হবে এবং সেখানে গিয়ে মাই জিপি সার্চ করে মাই জিপি অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করে নিতে হবে।

ধাপ ০২: মাই জিপি অ্যাপ ইন্সটল করা হয়ে গেলে এখন আপনি সেটা ওপেন করে আপনার কাঙ্খিত গ্রামীন নাম্বারটি ওই অ্যাপসে লগইন করে নিবেন। লগইন করার জন্য অ্যাপ এ ঢুকে জিপি নাম্বারটি দিয়ে এরপর আপনার নাম্বারে একটি কোড আসবে সেই কোডটি এখানে বসানোর সাথে সাথে লাগ ইন হয়ে যাবে।

ধাপ ০৩: লগিন হওয়ার পর আপনি সরাসরি মাই জিপি অ্যাপ্লিকেশনে ঢুকে যাবেন। এরপর ডান সাইডে একদম নিচের দিকে দেখবেন মেনু নামের একটি অপশন দেখা যাচ্ছে সেটাতে চেপে দিবেন।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে

ধাপ ০৪: মেনুতে চাপ দেওয়ার পর মাইজিপি অ্যাপ এর  সমস্ত মেনু আপনার সামনে ওপেন হবে। এখন আপনি এখান থেকে নিচের দিকে একটু স্ক্রল করে গেলে দেখবেন সেখানে লাইভ চ্যাট নামে আরেকটি অপশন আছে। সরাসরি ওই লাইভ চ্যাটের মধ্যে ঢুকে যাবেন।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে

ধাপ ০৫: এরপর আপনি এখানে লিখবেন “agent”  তারপর সেটা সেন্ড করে দিবেন। এজেন্ট লেখা সেন্ড করে দিলে আপনার সামনে একটি কানেক্ট এজেন্ট নামের বাটন আসবে আপনি সরাসরি ওই বাটনে চেপে দিবেন।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে

ধাপ ০৬: কানেক্ট এজেন্ট এ চেপে দিলে সরাসরি গ্রামীনফোনের একজন কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে আপনার কানেক্ট হয়ে যাবে। এরপর তাকে বলতে হবে আপনার জিপি সিমের ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন কোড ভুলে গেছেন।

See also  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ক্ষতিকর দিক ও অপব্যবহার

ধাপ ০৭: এটা বললে তারা আপনার থেকে আপনার সিমটি যে আইডি কার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা আছে সেই আইডি কার্ডের নাম্বারটি চাইবে অথবা শেষের চার ডিজিট ও চাইতে পারে। সেগুলো সুন্দরভাবে দিয়ে দিবেন।

ধাপ ০৮: এরপর তারা আপনার কাছে আরো কিছু এডিশনাল ইনফরমেশন জানতে চাইতে পারে তো আপনি কোন চিন্তা না করে সেই ইনফো গুলো সঠিকভাবে তাদেরকে প্রোভাইড করবেন।

ধাপ ০৯: সমস্ত ইনফরমেশন সঠিক ভাবে দিলে তারা আপনার থেকে একটি নতুন পিন নাম্বার চাইবে ওই পিন নাম্বারটি সেন্ড করলে তারা সেটি নতুন করে সেট করে দিবে। অথবা আপনি যদি বলেন যে আপনি নিজেই পিন সেট করে নেবেন তাহলে আপনাকে তারা সেই অপশনটিও দিয়ে দিবে।

তো আপনি সর্বশেষে তাদেরকে যে পিন নাম্বারটি সেট করতে বলবেন তারা ওই পিন নাম্বারটি নতুন করে সেট করে দিবে এখন আপনি চাইলে এই পিন নাম্বার দিয়ে আপনার জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।

বন্ধুরা আমি আশা করতে পারি যারা আপনার জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড ভুলে গিয়েছিলেন তারা আবার এই পদ্ধতি অবলম্বন করার মাধ্যমে সেই কোডটি ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন। এরপরও যদি কোন সমস্যা হয় সেটা আমাদের জানাতে ভুলবেন না।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড

আপনি যদি জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার দরকার হবে এই জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড টি।

এই কোডটি ছাড়া আপনি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাইলে আপনার ওই মাই জিপি অ্যাপ্লিকেশন এর দরকার হবে। কিন্তু যারা অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে জানে না তাদেরকে অবশ্যই জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড টি ভালোমতো জানতে হবে ।

তো এই জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড হচ্ছে *১২১*১৫০০# আপনারা আপনাদের ফোনের ডায়াল প্যাদে গিয়ে এই কোড ডায়াল করলে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর সমস্ত অপশন দেখতে পারবেন।

See also  মেয়ে কন্ঠে নিজের নামে রিংটোন বানানোর সহজ উপায়

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড দিয়ে যে সমস্ত কাজ করা যাবে –

আপনাদের মনে অনেকের প্রশ্ন থাকতে পারে যে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড দিয়ে কি কি কাজ করা যাবে । তোর নিচে আমি সেগুলো পয়েন্ট আকারে আপনাদেরকে বলে দিলাম –

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড

✓ যদি আপনার জিপি সিমটি দিয়ে আগে কখনো ব্যালেন্স ট্রান্সফার করে না থাকেন। তাহলে এই কোডটা ডায়াল করার মাধ্যমে নতুন করে রেজিস্ট্রেশন করে পিন সেট করে নিতে পারবেন।

✓ জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড ডায়াল করার পর দুই নম্বরে যে অপশন দেখানো হবে এই অপশনটি ব্যবহার করে আপনারা খুব সহজে আপনার জিপি নম্বর থেকে অন্য যেকোন জিপি নাম্বারে টাকা পাঠিয়ে দিতে পারবেন।

✓ এছাড়াও জদি আপনি আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর পিন পরিবর্তন করতে চান তাহলেও এই কোড ডায়াল করে সেটা করে নিতে পারবেন।

✓ আপনি আনলিমিটেড টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন না অর্থাৎ এটির একটি লিমিট আছে। তো কোড তো ডায়াল করার মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর লিমিট সম্পর্কে খুব সহজে জেনে নিতে পারবেন।

জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার উপায়

বন্ধুরা উপরে আমরা আপনাদেরকে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত বলেছি। কিন্তু অনেকেই আছে যারা জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাই কিন্তু পারে না।

তো তাদের জন্য এখন আমরা সহজ ভাষায় জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা শিখিয়ে দেব যেটা জেনে নিলে আপনার অবশ্যই কাজে আসবে।

তবে হ্যাঁ এখানে মনে রাখবেন আপনি চাইলে দুইভাবে জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।  একটি হচ্ছে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড ডায়াল করার মাধ্যমে এবং অন্যটি হচ্ছে কাঙ্ক্ষিত মাই জিপি অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করার মাধ্যমে। নিচে দুইটি উপায়ই শিখিয়ে দেওয়া হল।

কোড ডায়াল করে ব্যালেন্স ট্রান্সফার

✓ এর জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে আপনার মোবাইলে ডায়াল অপশনে চলে যেতে হবে এবং সেখানে গিয়ে *১২১*১৫০০# কোড টি ডায়াল করতে হবে।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড

✓ কোড ডায়াল করার পরে এখানে মোট চারটি অপশন দেখানো হবে। যদি আগে ব্যালেন্স ট্রান্সফার রেজিস্ট্রেশন করে না থাকেন তাহলে এক নম্বর অপশনটি বাছাই করার পরে নতুন পিন সেট করে রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন।

✓ তারপর আবার কোড ডায়াল করে দুই নম্বর অপশনটি সিলেক্ট করে ট্রান্সফার ব্যালেন্স এ চলে যাবেন।

See also  শিক্ষা ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের ১০টি ব্যবহার নিয়ে বিস্তারিত

✓ এখন এখানে আপনি যে নাম্বারে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাচ্ছেন সেই নাম্বারটি সুন্দরভাবে বসিয়ে দিয়ে নেক্সট এ চলে যাবেন।

✓ নাম্বার বসানো হয়ে গেলে তারপরে কত টাকা পাঠাবেন সেটা বসাবেন । এখানে বলে রাখা ভালো আপনারা সর্বোচ্চ ১০ থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত পাঠাতে পারবেন একবারে।

✓ টাকার এমাউন্ট বসিয়ে দেওয়ার পর আগে যে পিন সেট করেছিলেন সেই পিনটি বসিয়ে ডান করে দিলে আপনার ওই নাম্বারে কাঙ্খিত টাকাটি চলে যাবে।

মাই জিপি অ্যাপের মাধ্যমে জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার

✓ সর্বপ্রথম প্লে স্টোর থেকে মাই জিপি অ্যাপ ইনস্টল করে লগইন করে নিতে হবে। কিভাবে লগইন করবেন সেটা উপরে আমি আপনাদেরকে বিস্তারিত বলা হয়েছে।

✓ অ্যাপ এ ঢোকার পর ব্যালেন্স অপশনের নিচে ডিটেলস অপশনে চাপ দিবেন।

জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার

✓ ডিটেলস অপশনে ঢুকার পর এখানে দেখতে পারবেন ট্রান্সফার নামের একটি অপশন আছে তো সেটাতে সরাসরি চেপে দিবেন।

জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার

✓ ট্রান্সফার অপশনে চাপ দেওয়ার পর আপনার সামনে বেশ কয়েকটি অপশন দেখানো হবে এখন এখান থেকে আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর কাজগুলো করতে হবে।

✓ যদি আগে রেজিস্ট্রেশন করে না থাকেন তাহলে এখানে রেজিস্টার নাও বাটনে চেপে দিয়ে প্রথমে নতুন পিন সেট করে রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন।

✓ রেজিষ্টেশন করা হয়ে গেলে ওপরের ঘরে যেন আমরা টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন সেই নম্বরটি সঠিকভাবে বসিয়ে দিবেন।

জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার

✓ দুই নম্বর যে ঘরটি দেখতে পাচ্ছেন এখানে বসাতে হবে যে আপনি কত টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন। এখানে অবশ্যই ১০ থেকে ১০০ এর মধ্যে অ্যামাউন্ট বসাতে হবে ।

✓ সর্বশেষ যে পিন নামের ঘর দেখতে পাচ্ছেন সেখানে আপনার সেট করা পিন বসিয়ে দিয়ে ট্রান্সফার বাটনে চাপ দিলেই ব্যালেন্সটি সরাসরি ট্রান্সফার হয়ে যাবে।

আশা করি উপরে লেখাগুলো পড়ার মাধ্যমে আপনি জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার পদ্ধতি সম্পর্কে একদম পরিষ্কারভাবে বুঝে গেছেন।

পরিশেষে

জিপি সিমে বেশি টাকা রিচার্জ করা হয়ে গেলে অনেক সময় একে অপরের মোবাইলে টাকা পাঠানো প্রয়োজন পড়ে। তো আজকের এই পোস্ট পরার মাধ্যমে আপনি এই জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার সম্পর্কে একদম ভালোভাবে জেনে গেছেন আশা করি।

তারপরও যদি আপনার এই জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে কি করবেন সেটা নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই জিজ্ঞেস করবেন। ভালো থাকবেন এবং আমাদের পোস্টগুলো অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ভালো লাগতে পারে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button